Tuesday, May 21, 2024
32.3 C
Rajshahi
spot_img
হোমবিনোদনশাকিব-বুবলীর ‘কোয়ালিটি টাইম’ নিয়ে মুখ খুললেন অপু

শাকিব-বুবলীর ‘কোয়ালিটি টাইম’ নিয়ে মুখ খুললেন অপু

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় দুই নায়িকা শবনম বুবলী ও অপু বিশ্বাস। রিল লাইফের মতো রিয়েল লাইফেও এই দুই অভিনেত্রীর মধ্যে একটি সম্পর্ক আছে। দুজনই ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের প্রাক্তন ঘরণী ও অভিনেতার দুই সন্তানের মা।

জয় ও বীর দুজনই বাবার অনেক কাছের। তবে শাকিব খানের সাথে দুই নায়িকার আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক নিয়ে প্রায়ই দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েন ভক্তরা। এবার আবার খবরের শিরোনাম হয়েছেন তারা।

ঈদ উপলক্ষে টিভি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন বুবলী। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তিনি (বুবলী) এখনও শাকিব খানের স্ত্রী। তাদের মধ্যে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়নি, তবে আলাদা থাকছেন। বীরের কথা ভেবে তারা সময় নিচ্ছেন।

বুবলী জানান, শাকিবের বাসায় গেলে অপু-জয়ের সঙ্গে দেখা হয় বুবলী ও বীরের। একবার বীর ও শাকিবের সাথে রুমে সময় কাটাচ্ছিলেন বুবলী, এ সময় জয়কে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। বুবলীর এমন মন্তব্যে নেট দুনিয়ায় শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা। এদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর শুনে নাকি বিরক্ত শাকিব ও অপু।

সম্প্রতি গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘বুবলীর সাথে দেখা হওয়ার দিন ছিল প্রথম রমজান। আর সেদিন আগে থেকেই জয়কে নিয়ে শাকিব খানের বাসায় ছিলেন অপু। অপরদিকে বুবলী সেদিন শাকিবের বাসায় না অফিসে এসেছিলেন।’

পুরো ঘটনার ব্যাখ্যা দিয়ে অপু বলেন, আসলে এসব কথার ব্যাখ্যা দেয়ার রুচি আমার নেই। কারণ প্রত্যেক মানুষেরই একটা ব্যক্তিত্ব থাকে। তো এ বিষয়ে কথা বলার আগে কিছু কথা সবার জানা দরকার। মূলত সেদিন আমার শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদ ও শাকিবের সঙ্গে আমাদের ইফতারের আয়োজন ছিল। যেহেতু এবার রোজায় খান (শাকিব) ঢাকায় ছিলেন। তো সেভাবে আমাদের আয়োজন করা হয়। ইফতারের পর যতদূর মনে পড়ে, সন্ধ্যা ৭টার দিকে খাবার খাবে বলে শাকিব তার অফিস থেকে ফোনকলে আমাকে জানায়। আমি এর ৩০-৪০ মিনিট পর যখন শাকিবের বাসা থেকে সেই খাবারটা নিয়ে অফিসের দিকে যাই, তখনই বুঝে ফেলি যে শেহজাদ হয়তো বাবার (শাকিব) কাছে এসেছে। কারণ দরজা খুলতেই দেখি বুবলীর মেকআপম্যান/কেয়ারটেকারকে যে সবসময় শেহজাদের টেককেয়ার করে। তো খাবারটা নিয়ে শাকিবের অফিসে গিয়েই দেখি শেহজাদের সঙ্গে তিনিও (বুবলী) অফিসে এসেছেন। এ সময় আমার ও জয়ের সঙ্গে আমার ননদের মেয়েও ছিল। কিন্তু এটা বুবলী ভিন্নভাবে মিডিয়ায় উপস্থাপন করেছেন।

অপু আরও বলেন,  ‘‘ভেতরে গিয়ে দেখি টিভিতে কার্টুন দেখছে শেহজাদ। আর একটি চেয়ারে বসে আছেন তিনি। শাকিব ঘুমিয়ে আছেন। তাদের সঙ্গে ওই অফিসে তখন শাকিবের দুজন ব্যক্তিগত সহকারীও ছিলেন। এরপরও এটাকে কেন তিনি ‘কোয়ালিটি টাইম’ বলেছেন জানি না। বিষয়টি হচ্ছে উনি এসব বলে নিজে ছোট হচ্ছেন, না অন্যকে ছোট করার চেষ্টা করছেন, সেটাও আমি জানি না।’’

অভিনেত্রী বলেন, ‘শেহজাদের উপস্থিতিতে তার বারবার কোয়ালিটি টাইমের কথা সামনে আনার কোনো যৌক্তিকতা দেখি না।  এসবই মিথ্যা। তিনি কীভাবে বলতে পারেন- শেহজাদ তাদের (শাকিব-বুবলী) স্পেস দেয়। কী অদ্ভূত! সেই ছোট্ট বাচ্চা কীভাবে বুঝে নেয়, তার বাবা-মা একসঙ্গে সময় কাটাচ্ছে? আমি শুধু এটুকুই বলব, আল্লাহ যেন উনাকে হেদায়েত দান করেন। আমি খুবই লজ্জিত ও দুঃখিত যে-এই সময়ে এসেও এসব নিয়ে কথা বলতে হচ্ছে.’ যোগ করেন অপু বিশ্বাস।

স্বাধীন জনপদের সাথেই থাকুন

সম্পর্কিত সংবাদ

স্বাস্থ্যকথা

- Advertisment -

ইসলাম