Tuesday, April 23, 2024
35 C
Rajshahi
spot_img
হোমবিনোদনআবারও ট্রোলের শিকার নুসরাত জাহান

আবারও ট্রোলের শিকার নুসরাত জাহান

আবারও ট্রোলের শিকার নুসরাত জাহান

টালিউড অভিনেত্রী অনেক বারই ট্রোলের শিকার হয়েছেন। কখনো স্বামী নিয়ে, আবার কখনো সন্তান নিয়ে। এবার মাথায় সিঁদুর পরে ও রোগা হওয়ার কারণে ট্রোলড হলেন নুসরাত জাহান।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কয়েকবার ট্রোলের শিকার হয়েছেন নুসরাত জাহান। আসলে বরাবরই তিনি থাকেন নেট-নাগরিকদের স্ক্যানারে। তাই কখনও পোশাক নিয়ে, কখনও রোগা হওয়া নিয়ে, আবার কখনও হিন্দু উৎসবে সামিল হওয়া নিয়ে সমালোচকদের নিশানায় আসতে হয় তাকে। ষষ্ঠীর সকালে নিজের শাড়ি লুক শেয়ার করেছিলেন অভিনেত্রী। পেঁয়াজি রঙের সিল্ক, সঙ্গে বেগুনী রঙের ব্লাউজ, কানে বড় ঝুমকা। চুলের খোঁপায় লাগানো ফুল। তবে এই ছবিতে সবচেয়ে বেশি নজর কেড়েছে নুসরতের সিঁথি ভরা সিঁদুর। ব্যস আর কী, ট্রোলিং শুরু।

অনেকটাই ওজন ঝরিয়ে ফেলেছেন অভিনেত্রী। তবে কারও কারও এটা দেখেই ‘অসুস্থ’ লাগছে তাকে। একজন লিখলেন, ‘হাল চাষের গরু মতো দেখা যায়। হাড্ডি ছাড়া কিছুই নাই শরীরে।’  এছাড়াও তার মাথায় সিঁদুর পরা নিয়েও হল কটাক্ষ। একজন মন্তব্য করেছেন, ‘তুমি এক নাস্তিক তুমি মুসলমান হয়েও তুমি হিন্দুদের ধর্ম পালন করো।’ আবার একজন মন্তব্য করেছেন, ‘তুমি মুসলিম নামের কলঙ্ক।’

গত বছর পুজোর পরপরই নিজেকে যশের স্ত্রী হিসেবে দাবি করেছিলেন নুসরাত। যদিও বিয়েটা কবে কোথায় হয়েছে সে ব্যাপারে বিস্তারিত তিনি কখনোই জানাননি। পুজোর আগে আগস্ট মাসে জন্ম দিয়েছিলেন ছেলে ঈশানের। যার পিতৃপরিচয় নিয়েও অনেক কথা হয়েছিল। পরে বার্থ সার্টিফিকেটটাই ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে দেখা যায় ঈশান আসলে যশের সন্তান।

এই তো দিনকয়েক আগেই ইনস্টাগ্রামের কোশ্চেন অ্যান্ড আনসার রাউন্ডে একজন অভিনেত্রীকে প্রশ্ন করে বসেন, ‘তুমি অমুসলিমদের বিয়ে করেছো কেন? নাকি তুমি মুসলমান বর পাওয়ার যোগ্য নও?’ আর তাতে মেজাজ হারান বসিরহাটের সাংসদ। জবাব দেন, ‘তুমি ঠিক কোন গ্রহের প্রাণী? তুমি কি মানুষ…!’

এর আগে ২০১৯ সালের জুন মাসে তুরস্কের বোদরুমে রাজকীয় বিয়ে সেরেছিলেন নুসরাত জাহান ও পোশাক ব্যবসায়ী নিখিল জৈন। তবে সেই বিয়ে ভারতের ‘স্পেশ্যাল ম্যারেজ অ্যাক্ট ১৯৫৪’ হিসেবে হয়নি। তাই গত বছরই তা আলিপুর আদালতে খারিজ হয়ে যায়। আপাতত যশের সঙ্গে তার সুখের সংসার। তাদের ছেলে ঈশান তো আছেই, যশের আগের পক্ষের ছেলে রিয়াংশও তাদের সঙ্গেই থাকে বলে জানা যায়।

স্বাধীন জনপদের সাথেই থাকুন

সম্পর্কিত সংবাদ

স্বাস্থ্যকথা

- Advertisment -

ইসলাম