Tuesday, May 21, 2024
31.7 C
Rajshahi
spot_img
হোমবিনোদন“অপারেশন সুন্দরবন” জমজমাট গল্পের নান্দনিক উপস্থাপন

“অপারেশন সুন্দরবন” জমজমাট গল্পের নান্দনিক উপস্থাপন

বছরের অন্যতম প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘অপারেশন সুন্দরবন’। আগামীকাল সারা দেশে মুক্তি পাচ্ছে র‌্যাব ওয়েলফেয়ার সোসাইটি প্রযোজিত প্রথম ছবিটি। গত মঙ্গলবার রাতে বসুন্ধরা শপিং মলের স্টার সিনেপ্লেক্স শাখায় হয়ে গেল এর প্রিমিয়ার শো। ছবিটি নিয়ে যে মানুষের আগ্রহ রয়েছে, তা আরও একবার জানা গেল প্রিমিয়ারের অতিথিদের উপস্থিতি দেখে। একযোগে স্টার সিনেপ্লেক্সের এই শাখার কয়েকটি হলে ছবিটির প্রিমিয়ার করা হয়। তাতে উপস্থিত ছিলেন ছবির পরিচালক দীপংকর দীপন, স্টারকাস্ট থেকে শুরু করে প্রযোজনা সংস্থার লোকজন, সাংবাদিক ও অন্য তারকা অতিথিরা। সবাই মোটামুটি জানেন এই ছবির গল্প, র‌্যাব বাহিনীর বীরত্ব নিয়ে। তারা অসীম সাহসিকতার সঙ্গে সুন্দরবনের মতো দেশের গুরুত্বপূর্ণ সম্পদকে জলদস্যুমুক্ত করেছে সে গল্পই উঠে এসেছে। এমনকি উৎসুক দর্শক এও জানেন, এই ছবিতে প্রিয় তারকারা কে কোন চরিত্রে অভিনয় করেছেন। র‌্যাবের অফিসার চরিত্রে আছেন অভিনেতা রিয়াজ আহমেদ, সিয়াম আহমেদ ও রোশান। নুসরাত ফারিয়া লন্ডন ফেরত বাঘ গবেষক, কলকাতার নায়িকা দর্শনা বনিক চিকিৎসক।

ছবিটিতে র‌্যাবের সম্পৃক্ততা, পরিচালকের আগের ছবি ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এর খ্যাতি, একঝাঁক তারকাশিল্পী এসব কারণেই মূলত ছবিটির প্রতি দর্শকের আগ্রহ। তবে একইসঙ্গে দর্শকমনে কিছু প্রশ্নও রয়েছে। ছবিটি যেহেতু একটি সসস্ত্র বাহিনীর, ফলে ছবি নির্মাণে পরিচালক কতটা স্বাধীনতা পেয়েছেন, ছবিটি যেহেতু একটি সিরিয়াস বিষয়কে উপজীব্য করে, সেটি দেখানো গিয়ে ছবিটি কতোটা সিনেমাটিক হয়ে উঠেছে, ছবি দেখতে গিয়ে ডকুমেন্টারির স্বাদ পেতে হবে কি না ইত্যাদি। শুরু থেকেই ছবির সকল প্রচারণায় শিল্পী ও পরিচালক এসব ধারণা নিয়ে তাদের অবস্থান পরিষ্কার করে আসছেন। এবার ছবিটি দেখে তা একেবারেই স্পষ্ট হয়ে গেল। ছবিটিকে এককথায় বলা যায় জমজমাট গল্পের নান্দনিক উপস্থাপন।

কোনো কিছুর চাপে ছবিটি ছবি হয়ে ওঠা থেকে ব্যাহত হয় না। একেবারেই সরলরেখায় গল্প এগিয়ে যায়, কিন্তু তাতে রয়েছে নানা বাঁক। যা দর্শককে প্রায় আড়াই ঘণ্টার সিনেমাটি শেষ পর্যন্ত দেখতে উৎসাহ দেবে। পরিচালক দীপন শুধু একটি টানটান গল্পই দেখাননি, তিনি দর্শককে একটি সিনেমাটিক জার্নি উপহার দিয়েছেন। গল্প, পাত্র-পাত্রীর অভিনয়, ক্যামেরার কাজ, লোকেশন, ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর, গান, অ্যাকশন দৃশ্য, পোশাক পরিকল্পনা, মেকাপ, কালার গ্রেডিং- সব দিকেই যত্নবান ছিলেন। তার সবচেয়ে বড় সফলতা এতগুলো তারকাশিল্পীকে কাস্টিং করে প্রতিটি চরিত্রের প্রতি সদ্ব্যবহার করেছেন। এখানে কাউকে এককভাবে ছবির নায়ক, নায়িকা কিংবা ভিলেন বলা যায় না। সমান গুরুত্বের সঙ্গে তিনি তুলে ধরেছেন সিয়াম, রোশান, রিয়াজ, তাসকিন, মনোজ, রাইসুল ইসলাম আসাদ, আরমান পারভেজ মুরাদের চরিত্রগুলোকে। একইভাবে নারী চরিত্রগুলোকেও। তারমধ্যেও কেউ কেউ নিজস্ব অভিনয়গুণে কেড়ে নেন আলাদা দ্যুতি। যেমন টাই হারুণ কিংবা পতিতাপল্লীর মেয়েটি।

‘অপারেশন সুন্দরবন’-এ শুধু র‌্যাবের বীরত্বই প্রকাশ পায়নি, একইসঙ্গে উঠে উঠেছে জলদস্যুদের অমানবিক নির্যাতনের চিত্র, আঞ্চলিক হতদরিদ্র মানুষের জীবন। প্রতিটি চরিত্রের আলাদা আলাদা গল্প ছবিটিকে আরও প্রাণবন্ত করে। সবমিলিয়ে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ হয়ে ওঠে দারুণ উপভোগ্য।

স্বাধীন জনপদের সাথেই থাকুন

সম্পর্কিত সংবাদ

স্বাস্থ্যকথা

- Advertisment -

ইসলাম